ভাবি.কে জো.রপূ.র্ব.ক ধ.র্ষ.ণ করে দেবর প.লা.তক

। ভাবিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে দেবর পলাতক

বরগুনার বেতাগীতে ইফতারের সময় মিষ্টি নিয়ে গিয়ে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী দেবরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়নে সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। পরের দিন মঙ্গলবার বেতাগী থানায় ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে নারী ও শিশু আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর বক্তব্য ও মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূর স্বামী ঢাকায় চাকরি করেন। শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে গ্রামের বাড়িতে থাকেন ওই গৃহবধূ। সোমবার বিকালে গৃহবধূর শাশুড়ি তার বাবার বাড়িতে যান এবং শ্বশুর ইফতার করতে মসজিদে চলে যান।

এ সময় একই এলাকার বাসিন্দা খলিল হাওলাদারের ছেলে নাঈম ওই গৃহবধূর দরজার সামনে এসে ডাক দেন এবং তার বাড়ির ইফতারির অনুষ্ঠানের মিষ্টি হাতে দিয়ে বলেন, ভাবি এটি রেখে আসেন, চাচি আসলে তাকে দিয়েন। ওই গৃহবধূ মিষ্টি নিয়ে ঘরের ভেতরে চলে গেলে নাঈম পেছনে পেছনে ঘরের মধ্যে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ওই গৃহবধূ আরও বলেন, সন্ধ্যার সময় সবাই ইফতারি তৈরিতে ব্যস্ত থাকায় ও পাশাপাশি কোনো ঘর না থাকায় ডাক-চিৎকার দিলেও কেউ শুনতে পায়নি। পরে আমার শ্বশুর মসজিদ থেকে আসলে দরজা বন্ধ দেখে আমাকে ডাক দেন; এ সময় ধর্ষক নাঈম পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। আসামি পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সানি লিওনকে ভারত ছাড়া করার হুমকি

সিলেটপ্রেস ডেস্ক :: সম্প্রতি সানি লিওনের নতুন মিউজিক ভিডিও ‘মধুবন মে রাধিকা নাচে’ মুক্তি পেয়েছে। এরপর থেকে এটি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। কারণ গানটির বিষয়বস্তু রাধা-কৃষ্ণের প্রেম হলেও এতে সানির নাচ নিয়ে আপত্তি উঠেছে। অনেকেই অভিযোগ করেছেন, এমন একটি গান অশ্লীলভাবে নেচে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করা হয়েছে।

বৃন্দাবনের পুরোহিত সান্ত নাবাল গিরি মহারাজ বলেন, ‘যদি সরকার এই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয় ও ভিডিও অ্যালবামটি নিষিদ্ধ না করে তাহলে আমরা আদালতে যাবো।’ পাশাপাশি গানের অশ্লীল দৃশ্যগুলো বাদ দিয়ে সানি লিওন জনগণের কাছে ক্ষমা না চাইলে তাকে ভারত ছাড়া করা হবে বলে হুমকি দিয়েছেন তিনি।

অখিল ভারতীয় তীর্থ পুরোহিত মহাসভার সভাপতি মহেশ পাঠকও সানির এই মিউজিক ভিডিও নিয়ে আপত্তি তুলেছেন। অশ্লীল ভঙ্গিতে নাচের মাধ্যমে ব্রিজভূমিকে অপমান করা হয়েছে বলে তার দাবি।

‘মধুবন মে রাধিকা নাচে’ গানটি প্রথম গেয়েছেন মোহাম্মদ রফি। ১৯৬০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘কোহিনূর’ সিনেমার জন্য এটি গেয়েছিলেন তিনি। সম্প্রতি সারেগামা মিউজিক গানটি নতুনভাবে তৈরি করে প্রকাশ করে। এটি গেয়েছেন কণিকা কাপুর ও অরিন্দম চক্রবর্তী।