একই স.ঙ্গে দু.টি মে.য়ে.কে বি.য়ে করে হা.নি.মুন, তার.পরে ঘটলো অ.ন্য ঘটনা

একই সঙ্গে দুটি মেয়েকে বিয়ে করে হানিমুন, তারপরে ঘটলো অন্য ঘটনা

বিবাহ একটি সামাজিক বন্ধন বা বৈধ চুক্তি যার মাধ্যমে এই দুটি মানুষের মধ্যে দাম্পত্য সম্পর্ক স্থাপিত হয়। বিবাহ মানে দুটি মনের মিলন, একটা দ্বায়িত্ব। অথচ অনেকসময় দেখা যায় এই বিয়ের নামে একজন অপরকে ঠকাচ্ছে, ব্যবহার করছে।
উত্তর প্রদেশের প্রয়োগরাজ জেলায় এমন একটি ঘটনা ঘটেছে। এখানে এক ছেলে দুজন মেয়েকে একসাথে বিয়ে করেছেন। এমনকি দুটি মেয়েকে নিয়ে হানিমুন উদযাপন করেছেন। তবে সমস্যার সূত্রপাত এর পর থেকেই হানিমুনের পরেই ছেলেটি পালিয়ে যায়। ঠিক কী ঘটনা ঘটেছিল?

সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে সোমবার দিন ঐ যুবকটি নতুন বান্ধবীর সাথে বিয়ে করছিল সেই খবর পেয়ে উপস্থিত হন তার পুরনো বান্ধবী। সেখানে শোরগোল শুরু হলে একই সাথে ওই যুবক তাকেও বিয়ে করেন। বিয়ে ও হানিমুন পর্ব মিটতেই যুবকটির নতুন বান্ধবীকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এই বিষয়ে ঘুণাক্ষরেও টের পাননি তার পুরনো বান্ধবী, অপেক্ষা করতে করতে কোন খবর না পেয়ে দ্বারস্থ হন পুলিশের কাছে। এবং শুক্রবার কর্নেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ সূত্রে খবর অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে আগেও একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার সূত্র ধরে জানা গেছে যে এই মেয়েটির সঙ্গে যুবকটির সম্পর্ক অনেক দিনের। একসময় এই মেয়েটি তার সাথে বিয়ের জন্য জোর করায় দুজনের মধ্যে বচসা বাধে শুরু হয় হাতাহাতিও। তখনো মেয়েটি যুবকের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিল এবং থাপ্পড় মারার অভিযোগে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল তবে পরবর্তীকালে তাকে পরিত্যক্ত করা হয়।

এবার মেয়েটি অভিযোগ এনেছে যে ছেলেটি প্রথমে তাকে বিয়ে করে এবং ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। বর্তমানে পুলিশ অভিযুক্ত যুবকের সন্ধান করছে।