গরু বিক্রি করে প্রধানমন্ত্রীর জন্য কাঠের ভাস্কর্য এনেছেন জেলে

খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার চহেরা গ্রামের জেলে সূর্যকান্ত গাইন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অগাধ বিশ্বাস, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা নিয়ে ভ্যান চালিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী জনসভায় এসেছেন তিনি। সঙ্গে দিয়ে এসেছেন সরকার প্রধানের জন্য কাঠের তৈরি ভাস্কর্য। মাছ বিক্রেতা সূর্যকান্তের এ উপহার সাধারণ নয়।

শেখ হাসিনার ভাস্কর্য বহন করছে একটি কাঠের নৌকা। এ থেকে বোঝা যায় বঙ্গবন্ধু কন্যা নৌকার জন্য এবং নৌকা তথা আওয়ামী লীগ তার জন্য। জানা যায়, গতকাল শুক্রবার ২৪ জুন রাত ৯ টায় নছিমন ভ্যান চালিয়ে চার সঙ্গীসহ পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী জনসভা মাদারীপুরের শিবচরের বাংলাবাজারের উদ্দেশ্য রওনা হন।

সকাল ৭ টায় জনসভার ২ কিলোমিটার আগে সেতুর জাজিরা প্রান্তের গোল চক্কর এসে পৌঁছান। কিন্তু নিরাপত্তাজনিত কারণে আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাকে মূল জনসভাস্থলে আসতে দেননি।

আজ এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমি ছোটবেলা থেকেই বঙ্গবন্ধুর ভক্ত। তার কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বিধায় পদ্মা সেতু হয়েছে। তাকে দেখতে এসেছি। কিন্তু উপহার ছাড়া তাকে দেখতে আসা কেমন দেখায়! তাই আমার পালিত গরু বিক্রি করে কাঠ দিয়ে নৌকা ও তার ওপর প্রধানমন্ত্রীর ভাস্কর্য করে নিয়ে এসেছি।

তিনি বলেন, সরকার প্রধানকে দেখতে পাননি, মন কিছুটা খারাপ হলেও তার জন্য আজ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জনগণের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে। তাই সে কষ্ট লাঘব হতে সময় নেবে না মাছ বিক্রেতা সূর্যকান্তের। তিনি আরও বলেন, দেখা করতে পারিনি, তাতে কী। আমি আমার নছিমন নিয়ে পদ্মাসেতু দিয়ে ঢাকা যেতে চাই।

আজ শনিবার ২৫ জুন দুপুরে মাওয়া প্রান্তে টোল পরিশোধ করে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় যোগাযোগ প্রকল্প পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। টোল দেওয়া শেষে উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-১ উন্মোচনের মাধ্যমে সরকার প্রধান পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন শেষে তিনি ‘জয় বাংলা’ বলে স্লোগান দেন।