ধর্ষিতাকে বিয়ে করেই জামিন পেল ধর্ষক!

নাটোরে একটি ধর্ষণ মামলায় আদালত চত্বরেই ধর্ষকের সঙ্গে ধর্ষিতার বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। আর বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পরই ধর্ষকের জামিন মঞ্জুর করেছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত। বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুরের এ ঘটনায় নাটোর জেলা ও দায়রা জজ আদালত পাড়ায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে- বুধবার (১৮ অক্টোবর) রাতে নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের রওশনপুর উত্তরপাড়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মানিক হোসেন একই এলাকার সম্পা খাতুন নামে ওই তরুণীর ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর আজ ১৯ অক্টোবর ধর্ষিতা বাদী হয়ে গুরুদাসপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। এদিনই ধর্ষক মানিক হোসেনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ।

এরপর মামলার শুনানীর সময় আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মঞ্জুরুল ইসলাম ধর্ষক মানিক হোসেনের জামিন আবেদনের পাশাপাশি উভয় পরিবার বিয়ের জন্য সম্মতি প্রকাশ করেছে বলে বিষয়টি আদালতকে অবহিত করে।

পরে নাটোর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আব্দুর রহমান সরদার ধর্ষিতার সঙ্গে ধর্ষকের বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর ধর্ষক মানিক হোসেনের জামিন মঞ্জুর করেন। এনিয়ে আদালত পাড়ায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

তবে এটি একটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী। এসময় আদালতে বাদি এবং আসামি পক্ষের আত্মীয়-স্বজন উপস্থিত ছিলেন।