Uncategorized

পরিবারের সবাইকে অচেতন করে বন্ধুর স্ত্রীকে ধর্ষণ

রংপুরের বদরগঞ্জে পরিবারের সকল সদস্যদের অচেতন করে বন্ধুর স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মিলন হোসেন ও মোস্তাকিন নামে অভিযুক্ত দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার (২১ মে) সকালে ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূসহ তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

জানা যায়, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর স্বামী আর অভিযুক্ত তিনজন একে অপরের বন্ধু। শুক্রবার (২০ মে) দিনের বেলায় তারা একসঙ্গে ঘোরাঘুরি করেন।

রাতে ওই গৃহবধূর শাশুড়ি তাদের রান্না করে খাওয়ান। কিন্তু কৌশলে ওই গৃহবধূ, তার শ্বশুর-শাশুড়ি আর স্বামীর খাবারে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে দেন ওই তিন ব্যক্তি।

ভাত খাওয়ার পরপরই পরিবারের সদস্যরা ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ১টার দিকে ওই গৃহবধূর কক্ষে প্রবেশ করে তার স্বামী তিন বন্ধু।

এ সময় তারা তাদের বন্ধুর হাত-পা রশি দিয়ে বেঁধে মুখে টেপ লাগিয়ে অচেতন স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন।

এক পর্যায়ে জ্ঞান ফিরে এলে ওই গৃহবধূ চিৎকার শুরু করেন। চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যান।

বদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমরা জানার পরই ঘটনাস্থলে যাই। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতাও মিলেছে। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মিলন ও মোস্তাকিন নামের দুই যুবককে শনিবার আটক করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.