প্রেমিকের বাড়িতে ৮ দিন ধরে প্রেমিকার অনশন

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দের ভদ্রঘাট ইউনিয়নের চৈদুয়ার গ্রামে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক সাদ্দামের বাড়িতে ৮ দিন যাবত অনশন করছেন প্রেমিকা আঁখি খাতুন (২১)। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিদিন ওই বাড়িতে প্রেমিকাকে দেখতে এলাকাবাসী ভিড় করছে।

গত মঙ্গলবার (১৩) জুন থেকে তিনি ওই বাড়িতে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।স্থানীয় এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের চৈদুয়ার গ্রামে ৬ বছর আগে আতাহার আলীর ছেলে কৃষক আল-আমিনের সঙ্গে শিয়ালকোল ইউনিয়নের বড় হামকুড়িয়া ।

গ্রামের আব্দুল হাইয়ের মেয়ে আঁখি খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের ১ বছর পর তাদের সংসারে একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু মেয়ে সন্তান হওয়ায় স্বামী আল-আমিন স্ত্রী আঁখিকে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করতো।

এক পর্যায়ে আঁখি খাতুন শ্বশুড়বাড়ির পাশে রফিকুল ইসলাম ওরফে ইসমাইল সরকারের ছেলে সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের ম্যানেজম্যান্ট বিভাগের ছাত্র সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। দীর্ঘ ৪ বছর ধরে সুচতুর সাদ্দাম বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আঁখি খাতুনের সঙ্গে একাধিকবার দৈহিক সম্পর্ক করে।

বিষয়টি জানাজানি হলে সম্প্রতি আঁখি খাতুনকে স্বামী আল-আমিন তালাক দেয়। পরে আঁখি খাতুনের পরিবারের পক্ষ থেকে প্রেমিক সাদ্দাম হোসেনের পরিবারকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে তাদের পরিবার সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। এ অবস্থায় প্রেমিক সাদ্দাম হোসেন নানা টালবাহানার পাশাপাশি অন্যত্র বিয়ে করার চেষ্টা করে।

এ সংবাদ প্রেমিকা আঁখি খাতুন জানতে পেরে স্বামীর বাড়িতে গিয়ে বিষপান করে। পরিবারের লোকজন দ্রুত তাকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। ৪ দিন চিকিৎসা শেষে আঁখি খাতুন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফেরে।