Uncategorized

প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে, শ্বশুরবাড়ি থেকে মৃতদেহ উদ্ধার

নজর২৪, খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে জেসমিন আক্তার ওরফে রিমি নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার মাস্টারপাড়া এলাকার বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জেসমিন আক্তার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার শিলছড়ি গ্রামের আলমগীর হোসেনের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার দিনগত রাতে মানিকছড়িতে ভাড়া বাসায় জেসমিনের কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীরা ডাকাডাকির একপর্যায়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে ঘরের দরজা ভেঙে জেসমিনকে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানায় চিকিৎসক ডা. মহিউদ্দীন।

মানিকছড়ি থানার ওসি আমির হোসেন জানান, পারিপার্শ্বিক সব ঘটনা বিবেচনা করে ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। জেসমিনের ছোট ভাই বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

এদিকে নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, কয়েকমাস আগে উপজেলার তিনটহরী এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে জোনায়েদের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন জেসমিন। পরবর্তীতে ৩/৪ মাস আগে পালিয়ে বিয়ে করে ভাড়া বাসায় সংসার শুরু করেন দু’জন। বিষয়টি জানাজানি হলে ছেলের প্রভাবশালী পরিবার তাদের সম্পর্ক মেনে না নিয়ে জেসমিনকে তালাক দিতে নানাভাবে চাপ দিতে থাকেন।

একপর্যায়ে ছেলেকে নিয়ে আত্মগোপন করে পরিবার। এ নিয়ে বৈঠকে বসেও স্বামীর অধিকার পেতে ব্যর্থ এবং শ্বশুর বাড়ির পক্ষের অমানবিক আচরণে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় জেসমিন আক্তার।

Related Articles