মেম্বারের পরকীয়া প্রেমের ফাঁদে পড়ে দুই সন্তান রেখে পালিয়েছে মা

লক্ষ্মীপুরে ইউনিয়ন পরিষদের এক মেম্বারের পরকীয়া প্রেমের ফাঁদে পড়ে দুটি কন্যা সন্তান রেখে পালিয়েছে মা স্বপ্না আক্তার। পালিয়ে যাওয়ার সময় ৬ লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন স্বামী গার্মেন্টসকর্মী মানিক। এ ঘটনায় রোববার বিকেলে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী গার্মেন্টসকর্মী মানিক।

মঙ্গলবার বিকেলে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে মানিক বলেন, প্রায় ১৪ বছর আগে ভোলার চরফ্যাশনের বাসিন্দা ফজলুর রহমানের মেয়ে স্বপ্না আক্তারকে পারিবারিকভাবে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

সম্প্রতি সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৬ নং ওয়ার্ডের মেম্বার জাকির হোসেন সুমন পরকীয়া প্রেমের ফাঁদে ফেলে স্বপ্না আক্তারকে ঘরছাড়া করে। মানিক লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ মান্দারী গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে।

এর আগে সামাজিকভাবে স্থানীয়দের কাছে এ অভিযোগ জানিয়েছেন মানিক ও তার পরিবারের লোকজন। তাতে কোনো সাড়া না পেয়ে আইনের আশ্রয় নেন তিনি।
এদিকে স্বপ্না আক্তারের মা নাহার বেগমও ভোলা থেকে ছুটে এসেছেন। তিনি তার মেয়ের সন্ধান চাওয়ার পাশাপাশি অভিযুক্ত মেম্বারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।

এদিকে মেম্বার জাকির হোসেন সুমনের স্ত্রী সালমা সুলতানা জানান, পরকীয়া প্রেমে জড়ানোর পর থেকে সুমন তাকে নানাভাবে নির্যাতন করে আসছে। এ বিষয়ে তিনি আইনি পদক্ষেপ নিবেন। তবে মান্দারী ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার জাকির হোসেন সুমন অভিযোগ অস্বীকার করছেন। চন্দ্রগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মোয়াজ্জেম হোসেন জানান,

একটা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের আলোকে ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। খবর-ডেইলি বাংলাদেশ
আজকের বাজার/আখনূর রহমান