মেয়েকে ধর্ষণ করতে আসায় ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

মেয়েকে ধর্ষণ করতে আসায় ভাইকে কুপিয়ে হত্যাগ্রেফতার নানকা বাউরী ও তার ছেলে রামকৃষ্ণ বাউরীহবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার লালচান্দ বাগানে চা শ্রমিক আশীষ বাউড়ি হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার ও হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন নিহতের আপন ভাই।শনিবার (১৯ মার্চ) দিবাগত রাত পৌনে ১২টায় পুলিশের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- নিহত চা শ্রমিকের ভাই নানকা বাউড়ি (৫০), তার স্ত্রী সবিতা বাউড়ি (৪৫), ছেলে রামকৃষ্ণ বাউড়ি (২৩) ও মেয়ে কৃষ্ণা বাউড়ি। শনিবার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন আসামিরা। এর আগে গত শুক্রবার রাতে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়।

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, নিহত আশীষ বাউড়ি ও নানকা বাউড়ি আপন ভাই। গত বছরের ৬ অক্টোবর নানকার মেয়েকে অর্থাৎ আশীষ তার আপন ভাতিজিকে তাদের ঘরে এসে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে নানকা তার ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেন।

সেদিন বিকেলে তাদের আরেক ভাই শিবু বাউড়ি নানকা বাউড়ির ঘয়ে গিয়ে আশীষের মরদেহ দেখতে পান। পরে খবর পেয়ে পুলিশ সন্ধ্যায় মরদেহটি উদ্ধার করে।
চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলী আশরাফ জানান, নানকা বাউড়ি জবানবন্দি রেকর্ডের পর চারজনকেই কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।