যুক্তরাষ্ট্রে ইসলামের আলো ছড়াচ্ছে বাংলাদেশের ফাতিহা

সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়ায় একটা শিশুর ভিডিও। কখনো ক্যামরার পেছনে দাঁড়ান গণিত শেখাতে।

কখনো বিজ্ঞানের নানান খুঁটিনাটি। কখনো কোডিং, আবার কখনোবা কোরআনের অর্থসহ টিউটোরিয়ালে শান্তির বার্তা শেখাচ্ছে শিশুকিশোরদের। প্রতিনিয়ত তৈরি করেছে সমবয়সীদের জন্য শিক্ষাবিষয়ক এমন নানান ভিডিও কন্টেন্ট।

শিশুটির নাম ফাতিহা আয়াত। তবে ফাতিহা নামেই অধিক পরিচিত। বয়স আট পেরিয়ে নয় এর কোটায় পা বাড়িয়েছে। এই বয়সের শিশুরা চকলেট নিয়েই খুশি থাকে সারাদিন। আর ফাতিহা নানা ব্যতিক্রমী কাজ নিয়ে।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফাতিহা নিউইয়র্ক সিটির শিক্ষা বিভাগের গিপ্টেন অ্যান্ড টেলেন্ট প্রোগ্রামের ফোর্থ গ্রেডের শিক্ষার্থী। বাবা ব্যারিস্টার আফতাব আহমেদ।




মা সালমা আকতার একজন স্কুল শিক্ষিকা। ফাতিহা বাবা-মা’র সাথে নিউইয়র্কে জ্যাকসন হাইটসে বাস করেন।

উত্তর আমেরিকা মহাদেশের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট ম্যাককিনল। সেটা দেখতে আলাস্কা প্রদেশের সুমেরু বৃত্তে বেড়াতে গিয়েছিল ফাতিহা। তখন বয়স ৭। গিয়ে দেখে— পাহাড়সম সুবিশাল হিমবাহ থেকে সাগরে ভেঙে পড়ছে বরফখণ্ড,

Related Posts
1 of 85

যে কারণে বাড়ছে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা। ফলে ভূপৃষ্ঠের বাড়ছে তাপমাত্রা। ভীষণ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে ফাতিহা। মনে পড়ে যায় তার নিজের দেশের ছোট্ট একটা বদ্বীপের কথা, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে যেটি একদমই উঁচুতে নয়।

নিউইয়র্কে ফিরে এসেই ফাতিহা ছুটল জাতিসংঘে। কীভাবে ফাতির যাত্রা শুরু হলো— জাতিসংঘের সদর দপ্তরে? তা আমরা শুনে নিই ফাতিহার মুখেই। টিবিএন টুয়েন্টি ফোরে ‘আমাদের সাতকাহন’ এক সাক্ষাৎকারে ফাতিহাকে এমন প্রশ্ন করা হলে




ফাতিহা জানায়, ১১ অক্টোবর আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবস। জাতিসংঘ ২০১৭ সালের আন্তর্জাতিক কন্যাশিশু দিবসের অনুষ্ঠান করে দুইদিন পর ১৩ অক্টোবর। ১৩ অক্টোবর আমার জন্মদিন। সে বছর বাবা-মা চেয়েছিলেন আমাকে জন্মদিনের উপহার হিসেবে একটা চমক দিতে।

তারা ওই অনুষ্ঠানের আয়োজকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে আমাকে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের ইকোসক চেম্বারে নিয়ে যান। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কানাডার নারীবিষয়ক মন্ত্রী মারিয়াম মোনসেফ তার অফিসিয়াল ভাষণে আমার কথা উল্লেখ করেন




এবং হলভর্তি বিভিন্ন দেশের প্রায় সাতশ’ ঊর্ধ্বতন কর্তাব্যক্তি আমাকে করতালি দিয়ে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। এরপর থেকেই আমার জাতিসংঘের বিভিন্ন প্রোগ্রামে অংশ নেওয়ার আগ্রহ হয় এবং একের পর এক সুযোগও আসতে থাকে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More