শার্শায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

যশোরের শার্শায় পানিতে ডুবে তাসকিন (৪) নামে এক শিশু মারা গেছে। শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের সময় উপজেলার বাগআঁচড়া ইউনিয়নের বসতপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত তাসকিন ওই গ্রামের কবির হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, শনিবার দুপুরের দিকে বাড়ির উঠানে খেলা করছিল তাসকিন। হঠাৎ তাকে দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করে। পরে বাড়ির পিছনে পুকুরে তাকে ভাসমান অবস্থায় স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে পরিবারের খবর দেয়।

পরে স্বজনেরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক ফরিদ ভূইয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

চট্টগ্রামে বিরল বৈশিষ্ট্য নিয়ে জন্ম নিয়েছে এক শিশু। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় যাকে ‘কলোডিয়ান বেবি’ বলা হয়। গত শনিবার (২১ নভেম্বর) রাতে চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ৩৮ সপ্তাহে জন্ম নেয়া শিশুটির সারাদেহ প্লাস্টিকের মতো দেখতে মোটা সাদা চামড়া দিয়ে মোড়ানো। চোখের পাতা বাইরের দিকে উল্টোনো।

জন্মের পর থেকেই শ্বাসকষ্ট, পানিশূন্যতাসহ ত্বকের বিভিন্ন সংক্রমণে ভুগছে। শিশুটিকে এখন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের নবজাতক ইউনিটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, জিনগত ত্রুটির কারণে বিশেষ ধরনের চর্মরোগ নিয়ে এই শিশুরা জন্মগ্রহণ করে। নিকট আত্মীয় দম্পতিদের এমন সন্তান জন্ম দেয়ার হার বেশি। উন্নত এবং দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসায় ১৫ শতাংশ ‘কলোডিয়ান বেবি’ বেঁচে থাকতে পারে।

বিশ্বব্যাপী জন্ম নেয়া কলোডিয়ান শিশুর সংখ্যা মাত্র ২৭০ জন। হারলেকুইন ইকথায়োসিস নামে এক ধরনের চর্মরোগ নিয়ে কয়েক লাখে একজন শিশু জন্মগ্রহণ করে।
জানতে চাইলে চট্টগ্রামের মেমন হাসপাতালের স্ত্রী রোগ চিকিৎসক ও সার্জন ইশরাত জাহান বলেন, ‘সিজার হওয়ার পর দেখা গেল যে এটি একটি বিরল প্রজাতির শিশু। আমার চিকিৎসা জীবনে এমন শিশু আগে কখনো দেখিনি।’