মর্গের ফ্রিজে ৭ ঘণ্টা থাকার পরে বেঁচে উঠল ‘মৃত’ ব্যক্তি!

ভারতের উত্তর প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনার পর ৪৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে মৃত ঘোষণা করে চিকিৎসকরা। পরে তাকে নেওয়া হয় হাসপাতালের মর্গে। সেখানে তাকে রাখা হয় ফ্রিজারে। রাত সেখানে কাটানোর পর সকালে স্বজনরা এসে দেখতে পান তখনও শ্বাস নিচ্ছেন তিনি।
উত্তরপ্রদেশের মুরাদাবাদে মোটরসাইকেলের আঘাতে মারাত্মক আহত হলে শ্রীকেশ কুমারকে দ্রুত একটি ক্লিনিকে নেওয়া হয়। তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে ময়নাতদন্তের জন্য তাকে একটি সরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। শুক্রবার তার ময়নাতদন্ত হওয়ার কথা ছিল।

 

রবিবার হাসপাতালের মেডিক্যাল সুপারিন্টেন্ডেন্ট রাজেন্দ্র কুমার বলেন, ‘ইমার্জেন্সি মেডিক্যাল অফিসার তাকে পরীক্ষা করে। তিনি জীবনের কোনো চিহ্ন পাননি আর সেই কারণে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।’
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন পুলিশকে ঘটনা জানানো হয় আর মরদেহ বিবেচনায় তাকে মর্গের ফ্রিজারে রাখা হয়। প্রায় ছয় ঘণ্টা পর তার স্বজনরা পৌঁছায়।
রাজেন্দ্র কুমার বলেন, পুলিশের একটি দল এবং তার পরিবারের সদস্যরা যখন ময়নাতদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরির কাজ শুরু করেন, তখন তাকে জীবিত পাওয়া যায়।
রাজেন্দ্র কুমার জানান, ৪৫ বছরের ওই ব্যক্তি এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে তিনি এখনো কোমায় রয়েছেন।
খবর এনডিটিভি