৩০ সেপ্টেম্বর খুলছে ঢাকা কলেজের ছাত্রাবাস

মাধ্যমিকের একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে খুলছে ঢাকা কলেজের ছাত্রাবাস।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আইকে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার ও উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক এটিএম মইনুল হোসেনের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) নির্দেশনার পাওয়ার পর ঢাকা কলেজ ছাত্রাবাস কমিটি ও শিক্ষকদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের জন্য হল খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে নির্দেশনা অনুযায়ী শুধুমাত্র উচ্চমাধ্যমিকের একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর আবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান করতে পারবে। এজন্য বেশ কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।




দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা

১. ২৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কলেজ আইডি কার্ডের ফটোকপি, আরটি-পিসিআর পরীক্ষার নেগেটিভ ফলের সার্টিফিকেট স্ব স্ব হল তত্ত্বাবধায়কের নিকট জমা দিতে হবে।

২. ২৮ সেপ্টেম্বর ছাত্রাবাসের সিট রেন্ট ও সার্টিফিকেট জমাদানকারী ছাত্রদের নির্ধারিত কক্ষে সিট বরাদ্দ দেওয়া হবে।

৩. ৩০ সেপ্টেম্বর বিকেল তিনটা থেকে ছাত্ররা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ছাত্রাবাসের নির্ধারিত কক্ষে অবস্থান করতে পারবে।

Related Posts
1 of 84




একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা

১. সিটের জন্য আবেদনকৃত ছাত্রদের সিট বরাদ্দের ফল ও ছাত্রাবাসে অবস্থানের নিয়মাবলী ২ অক্টোবর বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে প্রকাশ করা হবে।

২. ৩-৬ অক্টোবরের মধ্যে সিট বরাদ্দপ্রাপ্ত ছাত্রদের কোভিড-১৯ পরীক্ষার নেগেটিভ সার্টিফিকেট স্ব স্ব ছাত্রাবাসের তত্ত্বাবধায়কের কাছে জমা দিতে হবে এবং সিট রেন্ট নগদ, বিকাশ অথবা রকেট এর মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে।

৩. ৭ অক্টোবর সিট রেন্ট ও সার্টিফিকেট জমাদানকারী ছাত্রদের ছাত্রাবাসের নির্ধারিত কক্ষে বরাদ্দ দেওয়া হবে।

৪. ৮ অক্টোবর বিকেল তিনটা থেকে সিট বরাদ্দপ্রাপ্ত ছাত্ররা স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্ব স্ব কক্ষে অবস্থান করতে পারবে।

তবে করোনা পরিস্থিতি খারাপ হলে অথবা করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে গেলে পুনরায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক বন্ধের সিদ্ধান্ত হলে ছাত্ররা ছাত্রাবাস ছেড়ে দিতে বাধ্য থাকবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।




তবে অনার্স ও মাস্টার্স শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ছাত্রাবাস খোলার বিষয়টি সরকারি সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার। এক্ষেত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হল খোলা সংক্রান্ত নীতিও অনুসরণ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More