স্বামীর পর,কীয়া ধরতে গিয়ে ফেঁসে গেল স্ত্রী!

স্বামীর পর,কীয়া ধরতে গিয়ে ফেঁসে গেল স্ত্রী!

Related Posts
1 of 151

   

বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক বা পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছেন স্বামী। সেই সন্দেহে বাড়িতেই গোপন ক্যামেরা লাগালেন এক নারী। আর তার জেরে নিজেই গ্রেফতার হয়ে গেলেন তিনি। কারণ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, তিনি এক মহিলার ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ভঙ্গ করেছেন। সম্প্রতি এমনই এক বিচিত্র ঘটনা ঘটেছে ভারতের পুণেতে।

২০১৬ সাল থেকে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে পুণের ওই দম্পতির মধ্যে। স্ত্রীর সন্দেহ ছিল তার স্বামী অন্য কোনও মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। তাই তিনি প্রমাণ জোগাড় করতে গিয়ে নিজেদের বাড়িতেই গোপন ক্যামেরা ইনস্টল করেন তিনি। সেই ক্যামেরাতেই সত্যিই ধরা পড়ে স্বামী ও তার বান্ধবীর মধ্যে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু দৃশ্য।

সম্প্রতি গোটা ঘটনাটি সামনে এসেছে পুণের সাঙ্গভি থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর। থানার সিনিয়র ইন্সপেক্টর (অপরাধ) অজয় ভোঁসলে জানিয়েছেন, ৩৩ বছর বয়সী এক নারী থানায় তিন জনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ৩৫৪, ৫০৭, ১২০ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন।

 

 

অভিযোগ করা হয়েছে, ওই নারীর ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ভঙ্গ করা হয়েছে। ওই নারী যে তিন জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন তারা হলেন- আইনজীবী অভিজিৎ সারওয়াতে, তার নারী মক্কেল (যিনি সিসিটিভি লাগিয়েছিলেন নিজেদের বাড়িতে) ও এক অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

ইন্সপেক্টর অজয় ভোঁসলে জানিয়েছেন, অভিযোগকারী ওই নারীর দাবি, ভিডিও ফুটেজ দেখিয়ে তাকে ব্ল্যাকমেইল করা হচ্ছিল। যিনি গোপন ক্যামেরা লাগিয়েছিলেন সেই নারীর আইনজীবী অভিজিৎ সারওয়াতে তার কাছে টাকা চাইছিলেন। টাকা না দিলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই সব ভিডিও পোস্ট করে দেয়ারও হুমকি দিচ্ছিলেন।

এদিকে, যিনি গোপন ক্যামেরা লাগিয়েছিলেন বাড়িতে সেই মহিলা তার স্বামীকে ভিডিও দেখিয়ে বিবাহ বিচ্ছেদের পাশাপাশি প্রচুর টাকা চাইছিলেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর গ্রেফতার হন অভিযুক্ত ওই নারী। পুলিশ জানিয়েছে, বাকি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধেও আইন মেনে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

তবে আইনজীবী অভিজিৎ সারওয়াতের দাবি, তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হচ্ছে। সূত্র-আনন্দবাজার।

এনএস/

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More