ছাত্রীকে ধ’র্ষণ করতেন প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক, পা’হারায় শিক্ষিকা

ছাত্রীকে ধ’র্ষণ করতেন প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক, পা’হারায় শিক্ষিকা

বরিশালের বাকেরগঞ্জের ভোজমহল গ্রামে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে প্রধান শিক্ষকসহ দুইজন ধ’র্ষণ করায় গর্ভব’তী হওয়ার অভি’যোগ পাওয়া গেছে। পঞ্চম শ্রেনীর ছাত্রী ধ’র্ষণে একজন জে’লে থাকলেও ব’হাল তবি’য়তে রয়েছেন প্রধান শিক্ষক (দায়িত্বপ্রাপ্ত) বাবুল ও তার সহযো’গী একই স্কুলের শিক্ষক রেবা।

বুধবার রাতে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি নি’র্যা’তি’তা স্কুল ছাত্রী বাবুল ও রেবার শা’স্তির দাবি জানায়। নি’র্যাতি’তা ভোজমহল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী এবং ওই গ্রামের হ’তদরিদ্র পরিবারের সদস্য।মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অন্ত:স’ত্ত্বা পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী জানায়, নয় মাস পূর্বে স্কুলের শিক্ষক রেবা তাকে ডেকে নিয়ে প্রধান শিক্ষক বাবুলের কক্ষে যেতে বলে। এরপর সেখানে গেলে প্রধান শিক্ষক বাবুল তাকে ধ’র্ষণ করে। আর বলে দেয় এ ঘটনা কাউকে জানালে তাকে প্রা’ণে মে’রে ফেলবে। এভাবে প্রায়দিনই বাবুল তাকে ধ’র্ষণ করত। বাইরে পাহারায় থাকতো শিক্ষিকা রেবা।

এর মধ্যে তার বাড়ি সংল’গ্ন এলাকার বাসিন্দা জুয়েলও তাকে জো’রপূর্বক ধ’র্ষণ করে। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে বাসায় ঢুকে তাকে ধ’র্ষণ করে। প্রধান শিক্ষকের সাথে সাথে জুয়েলও তাকে একা’ধিকবার ধ’র্ষণ করে বলে জানায় মেয়েটি। জুয়েলও তাকে প্রাণনা’শের হু’মকি দিতো। ধ’র্ষণে গ’র্ভবতী হওয়ার চার মাস পর বিষয়টি তার মা বুঝতে পেরে তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে সব বলে দেয়।

Related Posts
1 of 151

এরপর মেয়েটির মা স্কুলে গিয়ে সকল শিক্ষকের কাছে বিষয়টি জানালে তারা তাকে ভ’য়ভী’তি দেখায়। এমনকি নি’র্যাতি’ত মেয়েটি এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষকের স্ত্রীকে জানালে তিনিও নি’র্যাতি’তাকে ভ’য়ভী’তি দেখায়।ঘটনার ৫ মাস পর বিষয়টি বাকেরগঞ্জ থানায় জানালে সেখানে মা’মলা দায়ের হয়। মা’মলা বাদী হচ্ছে মেয়েটির মা। কিন্তু ওই মা’মলা থেকে প্রধান শিক্ষক বাবুল ও শিক্ষক রেবাকে বাদ দিয়ে শুধু জুয়েলকে অভিযু’ক্ত করা হয়। জুয়েল বর্তমানে কা’রাগারে রয়েছে। নি’র্যাতি’তা মেয়েটি আরো অভি’যোগ করে প্রধান শিক্ষক বাবুল এভাবে স্কুলের বহু মেয়েকে ধ’র্ষণ করেছে। তাদের ভ’য়ভী’তি দেখানোর কারনে কোন মেয়ে তার বিরু’দ্ধে কিছু বলে না।

স্কুল সূত্র থেকে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের পদটি শূন্য রয়েছে। সেখানে বাবুল দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে কাজ করছেন। পূর্বে সে ভোজমহল এলাকার মেম্বর ছিল। এ কারণে তার বেশ প্রভাব থাকায় তার বিরু’দ্ধে কেউ টু শব্দ পর্যন্ত করতে পারে না।মেডিকেলের লেবার ওয়ার্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত নার্স শাহানাজ পারভীন বলেন, মেয়েটির শ্বাস ক’ষ্ট হচ্ছে। নরমাল ডে’লিভারী সম্ভব হবে না, সি’জারি’য়ানের প্রয়োজন হতে পারে। এ জন্য তার অভিভাবকদের র’ক্ত সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে। র’ক্ত সংগ্রহ হলে সিজা’রি’য়ান অ’পারে’শন করা হবে।

এ ব্যাপারে ভোজমহল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (দায়িত্বপ্রাপ্ত) বাবুল হোসেন বলেন, এ অ’ভিযোগ সম্পূর্ণ মি’থ্যা ও ভি’ত্তিহী’ন। আমার বিরু’দ্ধে ষড়য’ন্ত্র হচ্ছে।বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম বলেন, এ ঘটনায় ভি’কটি’মের মা বাদী হয়ে মাম’লা দায়ের করেছিলেন। ওই মা’মলার চা’র্জ’শিটও দেয়া হয়েছে। ভি’কটিমের অভি’যোগ পুলিশ প্রধান শিক্ষক বাবুলের নাম বাদ দিয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, পুলিশ যদি বাদ দিয়ে থাকে তাহলে ভি’কটি’ম ২২ ধারায় ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানব’ন্দি দিয়েছে। সেখানে কেন প্রধান শিক্ষকের নাম বললো না। আমার ধারণা কা’রাগারে থাকা জুয়েল ভি’কটি’মের নিকট আত্মীয়। হয়ত তাদের সাথে কোন গুছ প্রক্রিয়া হয়ে থাকতে পারে। এ জন্য ভি’কটিম ওই কথা বলছে।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More