রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে বাড়ীর ছাদে কিশোরীকে ধ’র্ষণ

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে বাড়ীর ছাদে কিশোরীকে ধ’র্ষণ

বগুড়ার শেরপুরে রাস্তা থেকে সিএনজিতে যোগে তুলে নিয়ে গিয়ে বাড়ীর ছাদে কিশোরী (১৫) কে ধ’র্ষণ করার অভিযোগে ৩ জনের নামে শেরপুর থানায় মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুপুরে মামলা দায়ের করে ভুক্তোভোগি কিশোরীর পালিত বাবা ওসমান আলী।

ভুক্তোভোগী কিশোরী শেরপুর পৌরসভার খন্দকার পাড়া এলাকার ওসমান আলী (পালিত বাবা) মেয়ে। আসামীদের মধ্যে ধুনট থানার এলাঙ্গী পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃ’ত বেলায়েত প্রমানিকের ছেলে তারিকুল ইসলাম তারেক (২৫), নলডাঙ্গা পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাবুল মন্ডলের ছেলে ওয়াসিম মন্ডল (২৫) গ্রেফতার করে। এবং পুরাতন পল্লী বিদ্যুতে অফিস এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে রানা মিয়া (২৫) পলাতক রয়েছে।

Related Posts
1 of 151

মামলা সুত্রে জানাযায়, তরিকুল ইসলাম তারেক সাথে ১ মাস আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কিশোরীর পরিচয় হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত (১৩ জুন) তারেক দেখা করার কথা বলে কিশোরীকে। পরে কিশোরীর বাড়ীর পার্শ্বে প্রোগ্রেসিভ স্কুলের নিকট দেখা করতে আসলে তরিকুল ইসলাম তারেক ও ওয়াসিম অজ্ঞাতনামা সিএনজিতে জোড় করে তুলে নিয়ে যায়।

এবং ধুনট হাসপাতাল রোডে পুরাতন বিদ্যুৎ অফিসে আসামী রানাদের বাড়ীর ছাদে নিয়ে গিয়ে তারেক ধ’র্ষণ করে কিশোরীকে মোটর সাইকেলে যোগে শালফা ব্রীজের নামিয়ে দিয়ে যায়। পরে কিশেরী বাসায় এসে বিয়টি বাবা-মাকে বলে, বাবা ওসমান আলী থানায় এসে অভিযোগ করলে শেরপুর থানার এসআই তন্ময় কুমার সঙ্গীয় ফোর্সসহ ১৪ জুন ধুনট উপজেলায় অভিযান চালিয়ে তারেক ও ওয়াসিমকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে শেরপুর থানার এসআই তন্ময় কুমার জানান, ধ’র্ষনের অভিযোগে ধারা-৭/৯ (১)৩০ ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩ অপহরন পূর্বক ধ’র্ষন ও সহায়তার অপরাধ আইনে শেরপুর থানায় (১৫ জুন) দুপুরে মামলা করা হয় মামলা নং ১৭। এবং ২জন আসামীকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। আরেক আসামীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More