১০টি কারণে স্বামীর কাছে তালাক চাইতে পারবে স্ত্রী

১০টি কারণে স্বামীর কাছে তালাক চাইতে পারবে স্ত্রী

 

Related Posts
1 of 151

 

দাম্পত্য জীবেন তালাক বৈধ ব্যবস্থা। তবে তা ইসলামের সবচেয়ে নি’ন্দনীয় বৈধ কাজ। প্রতিটি পরিবারেরই উচিত তা’লাক থেকে বেঁচে থাকা। তবে বিনা কারণে স্বামীর কাছে তালাক চাওয়া স্ত্রীর জন্য বৈধ নয়। স্ত্রীরা কারণবশতঃ স্বামীর কাছে তালাক চাইতে পারে। যথাযথ কারণ তাকলে স্ত্রীর তা’লাক চাওয়া অ’বৈধ নয় বরং জায়েজ। স্বামীর কাছে তালাক চাওয়ার কিছু কারণ তুলে ধরা হলো-

১। স্ত্রীর ভরণ-পোষণ দিতে অ’ক্ষম হলে, ২। শারী’রিকভা’বে অ’ক্ষ’ম হওয়ার কারণে স্ত্রীর জৈ’বিক চাহিদা পূরণে ব্য’র্থ হয়, ৩। স্ত্রী ছাড়া অন্য নারীর প্রতি আস’ক্ত হয় তথা পর’কী’য়া, পা’পাচা’রিতা কিংবা চা’রিত্রিক অ’ন্যায়-অ’পকর্মে লি’প্ত হয়, ৪। বৈধ যে কোনো কারণে স্বামীর প্রতি মনে প্রচ’ণ্ড ঘৃ’ণা সৃ’ষ্টি হলে, ৫। স্বামী দীর্ঘদিন ধরে কা’রাগা’রে বা কোথাও ব’ন্দি থাকার ফলে স্ত্রী যদি নি’রাপত্তা’হী’নতা কিংবা ক্ষ’য়-ক্ষ’তির আশং’কা করে, ৬।

 

স্বামী দীর্ঘ অ’নুপস্থিতির কারণে স্ত্রী যদি নিজের চারিত্রিক ক্ষ’তির সম্মুখীন হয়, ৭। ইসলামি শরিয়ত নির্দেশিত কারণ ছাড়া স্বামী যদি স্ত্রীকে শারী’রি’ক আ’ঘা’ত, অ’ত্যাচা’র, অ’প’মান কিংবা অভিশা’প ও গা’লাগা’লি দেয়, ৮। স্বামীর কোনো দু’রারো’গ্য বা সং’ক্র’ম’ক ব্যা’ধিতে স্ত্রী আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার আ’শং’কা থাকলে, ৯। স্ত্রীকে যদি নি’র্বাসি’ত জীবন-যাপনে অভ্য’স্ত হতে বা’ধ্য করে। অথ্যাৎ স্ত্রীর বাবা-মা, ভাই-বোনসহ মাহরামদের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাতে বা’ধা দেয়, ১০। নামাজ, রোজা, হজ, জাকাতসহ ইসলামের মৌলিক বিষয় সম্পর্কে ক’টু’ক্তি করার পাশাপাশি স্ত্রীকে ইসলামের বিধান পালনে বাধা দেয় কিংবা স্ত্রীকে ক’টু’ক্তি করে।

 

তবে এ সব ক্ষেত্রে স্ত্রী তার স্বামীর কাছ থেকে তা’লা’ক চাইতে পারে। এতে কোনো গোনাহ নেই বরং তা’লাক চাওয়া বৈধ। তবে তালাক চাওয়ার ক্ষে’ত্রে তাড়াহুড়ো করার কোনো সুযোগ নেই। বরং আগে স্বামীকে উল্লেখিত বিষয় সম্পর্কে বুঝানো কিংবা অভিভাবকের মাধ্যমে স্বামী সঠিক পথে আনার চেষ্টা করা জরুরি। যদি তাতেও সমাধান না হয় তবে এসব ক্ষেত্রে স্বামীর কাছে স্ত্রীর তালা’ক চাওয়া বৈধ।

 

মনে রাখতে হবে:  যে সব স্ত্রী কারণ ছাড়াই স্বামীর কাছে তালাক চায় হাদিসে তাদের ব্যাপারে কঠোর পরিণতির কথা বলা হয়েছে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন- ‘যদি কোনো নারী (স্ত্রী) অহেতুক তার স্বামীর কাছে তা’লাক চায় তবে তার জন্য জান্নাতের সুগন্ধও হা’রাম হয়ে যায়।’ (আবু দাউদ)

 

বিবাহিত নারীদের উচিত উল্লেখিত বিষয়গুলোর প্রতি যথাযথ গুরুত্ব দেয়া এবং প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করা। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর সব স্ত্রীদের হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More